৮২ বছরে ইউটিউব তারকা, আয় শুনলে যাবেন চমকে!

মিরর ডেস্ক : বয়স তাকে হার মানাতে পারেনি, তিনিই বয়সকে হার মানিয়েছেন। পাশাপাশি ঘুচিয়েছেন পরিবারের দারিদ্র্য। বলা হচ্ছে ৮২ বছর বয়সি এক নারীর কথা। তিনি এই বয়সেই জনপ্রিয় ইউটিউবার হিসেবে খ্যাতি পেয়েছেন। বিশ্বজুড়ে লাখ লাখ মানুষ তাকে ফলো করছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

বীরভূমের ইলামবাজারে বনভিলার বাসিন্দা, সাদা শাড়ির এই ছাপোষা নারীই মন জয় করে ফেলেছেন নেটিজেনদের। বর্তমানে ইউটিউবে তার ফলোয়ারের সংখ্যা প্রায় ১১ লাখ। ইউটিউব সংস্থা ২০২০ সালে তার চ্যানেল ‘ভিলফুড’ ব্লগকে দিয়েছে গোল্ড প্লে সম্মান। এই চ্যানেল থেকে বছরে ১০-১২ লাখ টাকা আয় করে এই পরিবার।

যারা রান্নার ভিডিও দেখতে পছন্দ করেন, বিশেষ করে বাঙালি রান্নার, তাদের কাছে পুষ্পরানি সরকারের ইউটিউব চ্যানেল খুবই জনপ্রিয়। চ্যানেলের ‘মাস্টার শেফ’ ৮২ বছরের এক বৃদ্ধা। তার করা রান্নার জনপ্রিয়তা শুধু ভারতে নয়, গোটা বিশ্বে। এমনকি, চীনের মানুষও ফলো করে ‘ভিলফুড’ ইউটিউব চ্যানেলটি। নিজের মুখরোচক স্বাদের রান্নায় তিনি পেয়ে গেছেন ইউটিউব তারকার তকমা।

২০১৭ সালে পুষ্পরানির নাতি সুদীপ সরকার খুলেছিলেন এই ইউটিউব চ্যানেল। আর প্রথম যে ভিডিও পোস্ট করা হয়েছিল, তাতে রান্না করা হয়েছিল কুমড়ো ফুলের বড়া। খড়ের ছাউনি দিয়ে ঘেরা রান্নাঘরে, শীল-নোড়ায় পেষা মসলা আর বাগানের সবজি, নিজের পুকুরের মাছ দিয়ে রান্না করেন তিনি। পুষ্পরানিকে সাহায্য করেন তার বউমাও।

বাংলার হারিয়ে যাওয়া বিভিন্ন ধরনের রান্না নিয়ে ভিডিও বানান পুষ্পরানি। চ্যানেলে চীনের সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যাও কিন্তু কম নয়। প্রায় ৪৬ হাজার চীনা ফলো করেন এই চ্যানেল। এ ছাড়া রয়েছে বাংলাদেশ, আফ্রিকা, তুরস্ক, ইংল্যান্ড, আমেরিকার বাসিন্দারা ফলো করেন পুষ্পরানিকে। ইলিশ থেকে কাতলা, থানকুনি পাতা থেকে কুমড়ো শাক, লাউ শাক, ডিম-মাংসের নানা পদ বানানোর আগে চোখ রাখতে পারেন এই দেশি বৃদ্ধার রান্নাঘরে।