করোনা উপসর্গ নিয়ে দিনাজপুরে যুবকের মৃত্যু

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা উপসর্গ নিয়ে সুলতান মাহমুদ (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাত ৯টায় বিরামপুর হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ওই যুবক।

এর আগে গত সোমবার তার করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা নিয়ে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। যার রিপোর্ট বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হাতে পায়নি বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, মৃত সুলতান মাহমুদ বিরামপুর উপজেলার কাটলা ইউনিয়নের দাউদপুর গ্রামের মৃত ফজরউদ্দিনের ছেলে। সে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত রবিবার থেকে বিরামপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এদিকে, মৃত্যুর আগে ওই যুবকের শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে, হাসপাতাল থেকে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়নি বলে স্বজনেরা অভিযোগ করেন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আবদুল্লাহ আল মাহমুদ শোভন জানান, গত সোমবার ওই যুবকের করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট এখনো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে পৌঁছায়নি। তার আগেই বুধবার রাতে তিনি মারা যান। বুধবার রাতেই করোনা বিধি মেনে মৃত ব্যক্তির মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মৃত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার দিনাজপুর সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহ্ এজাজ-উল হক জানান, বৃস্পতিবার দিনাজপুরে নতুন করে ৪৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ১শ’ ৪৪ জনে। ২৪ ঘন্টায় দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের পিসি আর টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ১শ’ ৫০টি রিপোর্টের মধ্যে ৪৩টি রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসে। আর বাকী ৭টি রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।