ঠাকুরগাঁওয়ে একদিনে করোনা শনাক্তের হার ৩১ শতাংশ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে কয়েকদিন ধরেই বেড়েই চলছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। গত এক সপ্তাহে জেলায় ৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৪৯ জন, বালিয়াডাঙ্গীতে ৩০ জন, হরিপুরে ছয়জন, পীরগঞ্জে একজন ও রানীশংকৈলে সাতজন রয়েছেন।

অন্যদিকে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ১০৬ টি নমুনা পরীক্ষায় এ ফলাফল পাওয়া যায়। এতে করোনা আক্রান্তের হার ৩১ দশমিক ৮০ শতাংশ। যা গত এক সপ্তাহে সর্বোচ্চ।

মঙ্গলবার (৮ জুন) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজুর রহমান সরকার।

তিনি বলেন, ‘জেলায় নতুন করে ৩০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। যেটি আমাদের জেলায় গত এক সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ। আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলা ১২ জন, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ছয়জন, রানীশংকৈল উপজেলায় সাতজন, হরিপুর উপজেলায় দুজন ও পীরগঞ্জ উপজেলায় তিনজন রয়েছে।

অপরদিকে জেলায় করোনা সংক্রমণ রোগী শনাক্তের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় সোমবার (৭ জুন) জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক জরুরি সভা হয়। সভায় সংক্রমণ রোধে রোগী শনাক্তের হার বৃদ্ধিপ্রাপ্ত সংক্রমিত এলাকাগুলোতে সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতকরণ, নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টার স্থাপন, সীমান্তে অবৈধভাবে পারাপার ও জনসমাগম প্রতিরোধকসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরেই আমাদের এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কী করে এটাকে কমানো যায় আমরা তার জন্য জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির একটি মিটিং করেছি। সেখানে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে আমাদেরকে সচেতন হতে হবে। করোনার ঝুঁকি এড়াতে জনসমাগম ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে প্রতিনিয়ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে।’