ব্রিটেনে করোনার তৃতীয় ঢেউ

মিরর ডেস্ক : যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। দেশটির এক বিজ্ঞানী এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাভি গুপ্তা বলেন, যদিও নতুন সংক্রমণ তুলনামূলকভাবে কম তবে করোনার ভারতীয় ধরন ছড়িয়ে পড়ছে।

করোনার বি.১.৬১৭.২ ধরনটি গত অক্টোবরে ভারতে প্রথম শনাক্ত হওয়ায় এটি ভারতীয় ধরন হিসেবেই বেশি পরিচিত। ভাইরাসের এই পরিবর্তিত রূপটি দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়তে সক্ষম। ফলে সংক্রমণের গতি বেড়ে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে দৈনিক সংক্রমণ বৃদ্ধি এবং মৃত্যুর পেছনে এই ধরনটিই দায়ী বলে ধারণা করা হয়।

ইংল্যান্ডে করোনার কারণে যে বিধি-নিষেধ জারি করা হয়েছে তা আগামী ২১ জুন তুলে নেয়া হবে। রাভি গুপ্তা বলছেন, এই বিধি-নিষেধ জারি রাখা প্রয়োজন। বিধি-নিষেধ তুলে নেয়া হলে সংক্রমণের গতি আরও বেড়ে যেতে পারে।

এদিকে, টানা পাঁচদিন ধরেই যুক্তরাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ তিন হাজারের বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে।গত ২৪ ঘণ্টায়ও দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে তিন হাজারের বেশি মানুষ।

ব্রিটেনে করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে কীনা এ সম্পর্কে অধ্যাপক গুপ্তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, অবশ্যই তাৎপর্যপূর্ণভাবে নতুন সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং তিন চতুর্থাংশ নতুন (ভারতীয়) ধরন।

ইতোমধ্যেই ব্রিটেনে বহু মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। ফলে বহু মানুষ সংক্রমণ থেকে বাঁচবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন অধ্যাপক গুপ্তা। ইতোমধ্যেই ব্রিটেনে আড়াই কোটির বেশি মানুষ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে।

এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্র। এই তালিকায় যুক্তরাজ্যের অবস্থান ৭ম। ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪ লাখ ৮৪ হাজার ৫৬। এর মধ্যে মারা গেছে ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৮১ জন। তবে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ৪২ লাখ ৮৭ হাজার ৭০৮ জন।