শরীরে আঘাতের চিহ্নবস্থায় নারী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

ঢাকা : রাজধানী ঢাকার কলাবাগানের বাসায় সাবিরা রহমান লিপি নামে এক চিকিৎসকের মৃত্যুর ঘটনাকে প্রাথমিকভাবে হত্যাকাণ্ড বলছে পুলিশ। তবে ফায়ার সার্ভিস বলছে, সকালে আগুন নেভানোর পর ডা. সাবিরা রহমান লিপির মরদেহ পায় তারা। এ ঘটনায় বাড়ির কেয়ারটেকারসহ তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রমনা জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শাহেনশাহ বলেন, ‘সকালে ভবনের তিন তলায় আগুনের ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডকে অন্যদিকে প্রবাহিত করতেই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘নিহত ডা. সাবিরার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সে কারণে আমরা প্রাথমিকভাবে এটিকে হত্যাকাণ্ড বলছি। এ কারণে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন জনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। নিহত নারী চিকিৎসক গ্রিন লাইফ হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন।’

পুলিশ কর্মকর্তা শাহেনশাহ আরও বলেন, ‘কিছুদিন আগে স্বামীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে ডা. সাবিরার। তিনি কলাবাগান ফার্স্ট লেনের ৫০/১ নম্বর বাসার তিন তলায় থাকতেন। তার ফ্ল্যাটে সাবলেট থাকা দুই নারীকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পরেই জানা যাবে ঘটনার প্রকৃত কারণ।’

সোমবার দুপুরের দিকে ওই বাসা থেকে ডা. সাবিরা রহমান লিপির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে ফায়ার সাভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার লিমা বলেন, ‘সকাল ১০টা ১০ মিনিটে কলাবাগানে ৫০/১ নম্বর ভবনের তিন তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সেখানে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে সেখান থেকে ডা. সাবিরা নামে এক চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।