১০০ মিলিয়ন বছরের পুরনো ডাইনোসরের হাড় উদ্ধার মেঘালয়ে

মিরর ডেস্ক : গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, মহারাষ্ট্র এবং তামিলনাড়ুর পর ভারতের পঞ্চম রাজ্য মেঘালয় যেখানে সেরোপোডের হাড় উদ্ধার হলো। সেরোপোড আসলে লম্বা গ্রীবা যুক্ত একপ্রকারের ডাইনোসর যা আজ থেকে ১০০ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীর বুকে বাস করতো। সম্প্রতি মেঘালয়ের পশ্চিম খাসি পার্বত্য অঞ্চলে এই প্রজাতির ডাইনোসরের হাড়গোড় উদ্ধার হয়েছে। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া অব প্যালিয়ন্টোলজি বিভাগের গবেষকদের নজরে আসে এটি। সেরোপোডগুলির দীর্ঘ ঘাড়, দীর্ঘ লেজ, তাদের শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় ছোট মাথা এবং চারটি পুরু স্তম্ভের মতো পা ছিল। বিশালাকৃতির জন্য এরা পৃথিবীতে বসবাসকারী সবচেয়ে বড় প্রাণীগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। সেই সময়ে টাইটানোসররা আফ্রিকা, এশিয়া, দক্ষিণ আমেরিকা, উত্তর আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং অ্যান্টার্কটিকায় বসবাস করতো যাদের একটি গোষ্ঠী হলো এই সেরোপড। তবে যেভাবে এদের হাড়গোড়গুলি সংরক্ষণ করা হয়েছে তা থেকে এদের বৈশিষ্ট সম্পর্কে জানা বেশ কঠিন বলে মনে করেন জিএসআই -এর  প্রবীণ ভূতাত্ত্বিক অরিন্দম রায়।

২০২১ সালে  খননকার্য চলাকালীন উদ্ধার হওয়া জীবাশ্মগুলি ক্রিটেসিয়াস যুগের বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তবে এগুলি নিয়ে এখনো বিস্তর পড়াশোনা করা বাকি আছে বলে মত ড: রায়ের। হাড়ের টুকরোগুলি খুব সাবধানে সংগ্রহ করা হয়েছিল।গবেষকরা বলেছেন, পঁচিশেরও বেশি বিচ্ছিন্ন, বেশিরভাগ খণ্ডিত হাড়ের নমুনাগুলি পুনরুদ্ধার করা হয়েছিল, যা বিভিন্ন আকারের এবং বিচ্ছিন্ন নমুনাগুলির কয়েকটির মধ্যে পারস্পরিক মিল রয়েছে বলে মনে করছেন গবেষকরা। এর মধ্যে ৫৫ সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্যের হাড়টি  টাইটানোসরিডের হিউমারাস হাড়ের সঙ্গে তুলনীয়। ৪৫ সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্যের অপূর্ণ একটি হাড়ের সঙ্গেও মিল রয়েছে টাইটানোসরের। হাড়ের নমুনাগুলি থেকে জরায়ুর ভার্টিব্রাও পুনর্গঠন করা হয়েছে। ক্রিটাসিয়াস পিরিয়ডে বসবাসকারী এই ধরণের ডাইনোসরগুলি বৃহদাকৃতির জন্য বেশিদিন পৃথিবীর বুকে স্থায়ী হয়নি। তবে তাদের একটি প্রজাতি যে ভারতে বাস করতো সে ব্যাপারে নিশ্চিত বিজ্ঞানীরা।