করোনা আক্রান্ত দুই খেলোয়াড়, স্থগিত কেকেআরের ম্যাচ

মিরর স্পোর্টস : করোনার থাবা অবশেষে পৌঁছে গেছে আইপিএলের কঠোরভাবে পালনীয় বায়ো-সিকিউর পরিবেশেও। সর্বশেষ টেস্টে কলকাতা নাইট রাইডার্সের খেলোয়াড়দের মধ্যে দু’জনের করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। যে কারণে আহদাবাদে আজ অনুষ্ঠিতব্য বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে ম্যাচটি স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিলো আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

কেকেআরের দুই খেলোয়াড় স্পিনার বরুন চক্রবর্তী এবং পেসার সন্দিপ ওয়ারিয়রের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। এরপর সাপোর্ট স্টাফসহ পুরো কেকেআর দলটিকেই আইসোলেশনে রাখা হযেছে।

আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে আইপিএলের দ্বিতীয় লেগে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালরুর বিরুদ্ধে মাঠে নামার কথা ছিল কলকাতা নাইটরাইডার্সের। কিন্তু তার আগেই দুই নাইট ক্রিকেটারের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর সামনে আসায় আজকের (সোমবার) ম্যাচ স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিসিসিআই। টুর্নামেন্টের কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়ে, কেকেআরের মিস্ট্রি স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী ও পেসার সন্দিপ ওয়ারিয়রের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

কেকেআরের বিরুদ্ধে আজ বিশেষ জার্সি পরে মাঠে নামার কথা ছিল বিরাট কোহলিদের। ভারতে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের সম্মান জানাতে বিশেষ নিল জার্সি পরে মাঠে নামার কথা ছিল আরসিবি খেলোয়াড়দের; কিন্তু নাইটদের বিরুদ্ধে তাদের ম্যাচ স্থগিত হয়ে যাওয়ায় কোহলিদের ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের সম্মান জানানোর বিষয়টি আরও পিছিয়ে গেল।

টুর্নামেন্টে মোটেই ভালো জায়গায় নেই কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্রথম সাতটি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতে হেরে আট দলের টুর্নামেন্টে সাত নম্বরে রয়েছে কিং খানের দল। গত মাসে চেন্নাইয়ে প্রথম সাক্ষাতে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর কাছে ৩৮ রান হেরেছিল কেকেআর। খারাপ পারফরম্যান্সের পাশাপাশি এবার করোনা থাবা বসাল শাহরুখের দলে। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন নাইট ওপেনার নীতিশ রানা; কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই সুস্থ হয়ে মাঠে নামতে পেরেছিলেন তিনি।

আইপিএল শুরু হওয়ার পর বায়ো-সিকিউরের মধ্যে এটাই প্রথম করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা। প্রশ্ন উঠেছে, কিভাবে এমন বায়ো সিকিউর পরিবেশের মধ্যে করোনা প্রবেশ করলো? জানা গেছে, সম্প্রতি দলের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে গ্রিন সিগন্যাল পেয়ে বায়ো সিকিউর পরিবেশ ত্যাগ করে কাঁদের ইনজুরিতে স্ক্যান করাতে গিয়েছিলেন বরুন চক্রবর্তি। সেখান থেকেই হয়তো তিনি আক্রান্ত হতে পারেন।

আইপিএল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কেকেআরকে এখন আগামী কয়েকদিন শুধু টেস্টের মধ্য দিয়েই যেতে হবে। আরও কয়েকদফা টেস্ট করা হবে,আর কোনো পজিটিভ কেস আছে কি না জানার জন্য।