মমতার হ্যাটট্রিক নাকি বিজেপি’র স্বপ্ন পুরণ

সুজিত বোস. কোলকাতা : ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে ফলাফল ঘোষণা আজ। কার হাতে থাকবে ক্ষমতা, প্রত্যাবর্তন নাকি পরিবর্তন? আজ মিলবে সব প্রশ্নের জবাব। সেই মাহেন্দ্রক্ষণের সামনে দাঁড়িয়ে পশ্চিমবঙ্গবাসী। ইতোমধ্যে রবিবার (২ মে) সকাল ৮টা থেকে ভোটগণনা শুরু হয়েছে। করোনা সুরক্ষাবিধির কথা মাথায় রেখে এবার ভোটগণনা চলবে। এজন্য বাড়তি সতর্কতা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো।

এদিকে, জরিপে টানটান লড়াইয়ের আভাস মিলেছে। একুশের মহাসংগ্রামে মূলত দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি। একদিকে, হ্যাটট্রিক নবান্নে ফিরতে মরিয়া মমতা ব্রিগেড। অন্যদিকে, সোনার বাংলা গড়তে মুখিয়ে রয়েছে পদ্মশিবির। জোড়াফুল না পদ্মফুল? কোনো ফুলকে বেছে নেবে পশ্চিমবঙ্গ, তারই অপেক্ষায় প্রহর গুণছে রাজনৈতিক মহল।

আজ ১০৮ কেন্দ্রে ভোটগণনা। এর মধ্য দিয়ে ২১৩২ জন প্রার্থীর ভাগ্যপরীক্ষা। পশ্চিমবঙ্গের ২৯২ আসনে ফল ঘোষণা। দুটি আসনে ভোট স্থগিত হয়েছে। করোনায় প্রার্থীদের মৃত্যুতে সামশেরগঞ্জ ও জঙ্গিপুর আসনে ভোট স্থগিত করা হয়। চলতি মাসেই ওই দুই কেন্দ্রে নির্বাচন।

বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী তৃণমূল পেতে পারে ১৫২ থেকে ১৬৪টি আসন। বিজেপি পেতে পারে ১০৯ থেকে ১২১টি আসন। আর বাম-কংগ্রেস জোট পেতে পারে ১৪ থেকে ২৫টি আসন। অর্থাৎ, বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় ফিরছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল।

আবার সিএনএক্স’র এক্সিট পোল অনুযায়ী ক্ষমতায় আসছে বিজেপি। এই বুথফেরত জরিপে বিজেপি এগিয়ে ১৩৮ থেকে ১৪৮টি আসনে, তৃণমূল এগিয়ে ১২৮ থেকে ১৩৮ আসনে এগিয়ে। আর বামজোট এগিয়ে ১১ থেকে ২১টি আসনে। জান কি বাতের জরিপে বিজেপি এগিয়ে ১৫০ থেকে ১৬২টি আসনে, তৃণমূল এগিয়ে ১১৮ থেকে ১৩৪ আসনে, বাম জোট এগিয়ে ১০ থেকে ১৪ আসনে। পি-মার্কের জরিপে ১৬২ আসনে এগিয়ে তৃণমূল, ১১৩ আসনে এগিয়ে বিজেপি, ১৩ আসনে এগিয়ে জোট। ইটিজি রিসার্চের জরেপ তৃণমূল এগিয়ে ১৬৯ আসনে, বিজেপি এগিয়ে ১১০ আসনে, জোট এগিয়ে ১২ আসনে।