এক্স-রে মেশিন এক যুগ ধরে বিকল, অপারেশন থিয়েটারও বন্ধ

স্টাফ রিপোটার : প্রয়োজনীয় জনবল সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত দিনাজপুর বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। হাসপাতালের চিকিৎসকগণ আন্তরিকভাবে সেবা দিলেও কাঙ্ক্ষিত পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় প্রকৃত স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত হচ্ছে। প্রায় দুই লাখ মানুষের বসবাসের এই উপজেলা হাসপাতাল ৫০ শয্যায় উন্নীত হলেও সার্জারি বিশেষজ্ঞ, গাইনি বিশেষজ্ঞ ও আ্যনেস্থিয়া চিকিৎসক না থাকায় অপারেশন হয় না এই হাসপাতালে।

আর প্যাথলজি বিভাগ চালু থাকলেও প্রায় ১২ বছর ধরে এক্স-রে এবং আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। আর এই সুযোগকে কাজে লাগানো বাইরের ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কতিপয় দালালদের খপ্পরে পড়তে হচ্ছে রোগীদের। এতে রোগীদের অতিরিক্ত খরচসহ দুর্ভোগে পড়তে হয় কখনও কখনও এমনটাই বললেন বিভিন্ন রোগীর লোকজন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, এক্স-রে মেশিনটি ২০০৩ সালে স্থাপন করা হয়। ৬ বছরের মতো চালু থাকার পর প্রায় ১২ বছর ধরে ওই এক্স-রে বিকল হয়ে পড়ে আছে। আলট্রাসনোগ্রাম মেশিনও নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরকারি দুইটি অ্যাম্বুলেন্স থাকলেও একটি বিকল। একটি এ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রোগীদের সেবা দেওয়া হয় কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এতে মুমূর্ষু রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সার্জারি বিশেষজ্ঞ, গাইনি বিশেষজ্ঞ ও আ্যানেস্থিয়া চিকিৎসক না থাকায় অপারেশন হয় না। তাই অপারেশন থিয়েটার কক্ষটি বন্ধই থাকে।

৫০ শয্যার এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯জন চিকিৎসক ও এ ১ জন ডেন্টাল সার্জন এবং ২৩ জন সেবিকা নিয়ে রোগীদের নিয়মিত সেবা দেওয়া হচ্ছে। বহির্বিভাগে প্রতিদিন প্রায় গড়ে ২৫০ থেকে ৩০০জন রোগী সেবা নিতে আসে। প্রতিদিন জরুরি বিভাগেও প্রায় ৩০-৪০ জন রোগী সেবা নেয়। উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ২২টি কমিউনিটি ক্লিনিক এবং ৫টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের মাধ্যমে রোগীদের কাঙিক্ষত সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.আবুল বাসার মো. সায়েদুজ্জামান বলেন, হাসপাতালের এক্স-রে, আলট্রাসনোগ্রাম নষ্টের বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্র্তপক্ষকে বার বার জানানো হয়েছে। আশা করা যায়, দ্রুত সমাধান হবে। তবে এখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পদায়ন হলে সেবার মান আরও বৃদ্ধি পাবে এবং রোগীরাও কাঙ্ক্ষিত সেবা পাবে।