পশ্চিমবঙ্গে দুই প্রার্থীর মৃত্যু, পিছিয়ে গেলো ভোটগ্রহণ

মিরর ডেস্ক : পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী ২ মে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে চলমান বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই প্রার্থীর মৃত্যু হওয়ার কারণে সেটি পিছিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে এখনো নতুন তারিখ ঘোষণা না করলেও ফলাফল প্রকাশের সময় পিছিয়ে যাওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে। তাছাড়া ওই দুই প্রার্থীর আসনে ভোটগ্রহণের তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

সেখানে বলা হয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে সংযুক্ত মোর্চার দুই প্রার্থী সামশেরগঞ্জের কংগ্রেস সমর্থিত রেজাউল হক ওরফে মন্টু বিশ্বাস এবং জঙ্গিপুরের আরএসপি সমর্থিত প্রদীপ নন্দী মৃত্যুবরণ করেছেন। গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার মারা যান মন্টু বিশ্বাস এবং পরদিন শুক্রবার প্রদীপ নন্দী। আগামী ২৬ এপ্রিল তাদের আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

আজ এক বিবৃতিতে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, আগামী ১৬ মে আসন দুটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত এবং গণনা হবে ১৯ মে। অবশ্য প্রথমে ১৩ মে ভোটের দিন ধার্য করা হয়েছিল। কিন্তু সেদিন মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই পিছিয়ে ১৬ তারিখ করা হয়েছে।

এদিকে, সামশেরগঞ্জের নতুন প্রার্থী হিসেবে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রয়াত রেজাউলের স্ত্রী রোকেয়া খাতুনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে এবং জঙ্গিপুরে প্রার্থী হতে যাচ্ছেন জানে আলম।

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে ষষ্ঠ ধাপে আজ বৃহস্পতিবার চার জেলার ৪৩ আসনে ভোটগ্রহণ চলে। এই দফায় কিন্তু রুপালি পর্দার তারকাদের পেছনে ফেলেছেন রাজনীতির তারকারা। আজ ভাগ্য নির্ধারিত হবে রাজ্যের একাধিক মন্ত্রীরও। এদিকে করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে নির্বাচনি প্রচারণার বিষয়বস্তু বদলে গেছে। ইস্যু হয়ে উঠছে করোনা ব্যবস্থাপনা, অব্যবস্থাপনার বিষয়গুলো।