‘এটাই হয়তো শেষ সকাল’, স্ট্যাটাসের পরদিনই মৃত্যু

মিরর ডেস্ক : হয়তো আগে থেকেই নিজের অন্তিম মুহূর্তের আগমনী বার্তা টের পেয়েছিলেন ৫১ বছর বয়সী ভারতীয় চিকিৎসক মনীষা যাদব। সে কারণেই হয়তো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্টে দিয়েছিলেন ইঙ্গিত। তার পরদিনই করোনাভাইরাস কেড়ে নিলো তার প্রাণ। মুম্বাইয়ের শিবড়ি টিবি হাসপাতালের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার ছিলেন মনীষা।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৯ এপ্রিল) করোনায় মৃত্যু হয় ডা. মনীষার।

মৃত্যুর আগের দিন রবিবার ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘এটাই হয়তো শেষ সকাল। এই প্ল্যাটফর্মে আমি হয়তো আপনাদের সামনে আর আসতে পারব না। সবাই ভালো থাকুন। শরীরের মৃত্যু হয়, আত্মার নয়। আত্মা অমর।’

জানা গেছে, চিকিৎসার পাশাপাশি হাসপাতালের প্রশাসনিক কাজকর্মও দক্ষ হাতে সামলাতেন মনীষা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে হার মানতে হলো করোনার কাছে। ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী, শুধু মহারাষ্ট্রেই ১৮ হাজার চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যাদের মধ্যে ১৬৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ২ লাখ ৯৫ হাজার ৪১ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২০২৩ জনের। সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা মহারাষ্ট্রেই। ভারতে এ পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৫৬ লাখ ১৬ হাজার ১৩০ জন। মোট মৃত্যু ১ লাখ ৮২ হাজার ৫৫৩ জন। বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ২১ লাখ ৫৭ হাজার ৫৩৮ জন। মহারাষ্ট্র ছাড়াও উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণ বাড়ছে উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, পাঞ্জাব, কর্ণাটক এবং ছত্তিসগড়ের রাজ্যগুলোতেও।