থাইল্যান্ড থেকে বছরে ১০ লাখ টন চাল আনা যাবে, এমওইউ সই

মিরর ডেস্ক : সরকারি পর্যায়ে (জি-টু-জি) ২০২৬ সাল পর্যন্ত থাইল্যান্ড থেকে বছরে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টন পর্যন্ত চাল আমদানি করতে পারবে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে।

সরকারি তথ্য বিবরণীতে এ কথা জানানো হয়েছে। অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে বাংলাদেশের পক্ষে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এবং থাইল্যান্ডের পক্ষে থাইল্যান্ডের বাণিজ্যমন্ত্রী জুরিন লাকসানা উইস্ট সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

সমঝোতা স্মারকের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ আগামী ২০২৬ সাল পর্যন্ত প্রতিবছর প্রয়োজন অনুযায়ী সর্বোচ্চ ১০ লাখ টন চাল থাইল্যান্ড থেকে আমদানি করতে পারবে। থাই সরকারও প্রতিবছর বাংলাদেশের চাহিদা অনুযায়ী তাদের উৎপাদন অবস্থা বিবেচনায় রেখে আন্তর্জাতিক মূল্যে বাংলাদেশে চাল রফতানি করতে সম্মত হয়েছে।

উভয় দেশ প্রয়োজনে সমঝোতা স্মারকের মেয়াদ বৃদ্ধি করতে পারবে বলেও তথ্য বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়েছে।