‘বৈশাখী শাড়ি’ না পেয়ে গলায় ফাঁস দিল স্কুলছাত্রী

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : আসন্ন পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে শাড়ি  কিনে না দেওয়ায় মায়ের সঙ্গে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার চর সোনাইকাজী গ্রামে।

নিহত ছাত্রীর নাম আরিফা খাতুন (১৪)। সে ওই গ্রামের শামছুল হকের মেয়ে ও চর কুলাঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

শিমুলবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান এজাহার আলী জানান, কয়েকদিন থেকে মায়ের কাছে বৈশাখী শাড়ি কেনার বায়না ধরে আরিফা। মা জাহেনুর বেগম ক্ষেতের ভুট্টা বিক্রি করে শাড়ি কিনে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে আবারও সে শাড়ির জন্য বায়না শুরু করলে মা তাকে ধমক দেন। এতে অভিমানে দুপুরে বাড়ির লোকজনের অগোচরে নিজ শয়ন ঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে সে। পরে পরিবারের লোকজন লাশ ঝুলতে দেখে পুলিশে খবর দেয়।

ফুলবাড়ী থানার ওসি রাজিব কুমার রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।