বাংলাদেশে সেবা সীমিত হওয়ার বিষয়ে যা বলল ফেসবুক

মিরর ডেস্ক : বাংলাদেশে শুক্রবার (২৬ মার্চ) বিকেল থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও মেসেঞ্জার অ্যাপের সেবা সীমিত রয়েছে। এ বিষয়ে আমেরিকান টেক জায়ান্ট ফেসবুক এক বিবৃতি দিয়েছে।

বিবৃতির বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মনে করছে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দুই দিনের বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে চলমান বিরোধিতার প্রেক্ষিতে ফেসবুকের সেবা সীমিত করে রাখা হয়েছে।

বিবৃতিতে ফেসবুক জানিয়েছে, ‘বাংলাদেশে ফেসবুকের সেবা সীমিত করার ব্যাপারে আমরা অবগত আছি। এ ঘটনার ব্যাপারে আমরা বিস্তারিত জানতে কাজ করছি। যত দ্রুত সম্ভব সম্পূর্ণ প্রবেশাধিকারের ব্যবস্থা করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।’

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেসবুক ও মেসেঞ্জারের সেবা বিপর্যয় নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য বা বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে বিক্ষোভ ঠেকাতে সেখানে এর আগেও ইন্টারনেট সেবা সীমিত করা হয়েছিল।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আরও বলছে, ‘মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কার্যকর যোগাযোগের জন্য যখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রয়োজন। তাই এমন সময়ে বাংলাদেশে ফেসবুকের সেবা সীমিত রাখার ঘটনা উদ্বেগজনক।’

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরুদ্ধে বিক্ষোভকালে শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় বিক্ষোভকারীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ ওঠে। এ সময় পুলিশের গুলিতে বিক্ষোভকারীদের চারজন নিহত হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার (২৮ মার্চ) সারাদেশে হরতাল ডেকেছে স্থানীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম।বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে শুক্রবার দুই দিনের সফরে ঢাকায় আসেন নরেন্দ্র মোদি। গত বছর মহামারি করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এটাই তার প্রথম আন্তর্জাতিক সফর।