সিলেটে কোয়ারেন্টাইনে থেকে ধুমধামে বিয়ে!

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় হোটেলে অনেকটা ধুমধাম করে বিয়ে করলেন এক যুক্তরাজ্য প্রবাসী। নগরীর লামাবাজার এলাকার লা ভিস্তা হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় ২০ মার্চ হওয়া প্রবাসীর এই বিয়ের খবর মঙ্গলবার জানাজানি হয়।

কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় অসুস্থ আত্মীয়কে দেখতে হোটেল থেকে একই পরিবারের ৯ প্রবাসী গ্রামের বাড়িতে ‘পালিয়ে’ যাওয়ার ঘটনায় তোলপাড়ের মধ্যে বিয়ের এই খবর সামনে এসেছে।

প্রবাসী বরের মা বিয়ের কেনাকাটাও সারেন কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায়। বিয়েতে হোটেলে প্রায় ৫০ জন অতিথিকে আপ্যায়নও করা হয়।

প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা ১৪৭ জনের মধ্যে ১১ জন নিয়ম অনুযায়ী নিজেদের খরচে নগরীর লা ভিস্তা হোটেলে ওঠেন। লা ভিস্তা হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য উঠা ১১ জনের মধ্যে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার জাঙ্গাইল গ্রামের একজন প্রবাসী নারী (৪৮) ও তার ছেলে (২৮) ছিলেন। এদের মধ্যে মা ৪০১ নম্বর রুমে ও ছেলে ৪০৬ নম্বর রুমে ওঠেন।

১৮ মার্চ সকালে হোটেলে ওঠার পর বিকেলে সিলেট সদর উপজেলার বাসিন্দা কনের সঙ্গে প্রবাসী বরের আকদ সম্পন্ন হয়। এরপর ২০ মার্চ উভয় পরিবারের প্রায় ৫০ জন অতিথির উপস্থিতিতে বিয়ের বাকি আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের সংক্রমণের মধ্যে গত ১ জানুয়ারি থেকে সরকার যুক্তরাজ্যফেরত সকলের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম করে। এই সময় প্রবাসীদের নিজ খরচে জেলা প্রশাসনের নির্ধারিত হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা রয়েছে। এই নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে লা ভিস্তা হোটেলে অস্থায়ী প্যান্ডেল বানিয়ে বিয়ে করেন প্রবাসী বর। এরপর তিনি নতুন স্ত্রীকে নিয়ে হোটেলে অবস্থান করছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

হোটেলে কর্মরতদের ‘ম্যানেজ’ করে কেনাকাটাসহ বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে নিশ্চিত হয়েছে প্রশাসন। লা ভিস্তা হোটেলের ব্যবস্থাপক তারেক আহমদ প্রাথমিকভাবে সবকিছু অস্বীকার করার চেষ্টা করেন। তিনি বিয়ে বা অতিথি আপ্যায়নের অভিযোগ অস্বীকার করে মানবিক কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আকদ হয়েছে বলে দাবি করেন।

প্রবাসী বর ও তার মায়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এমন ঘটনা কাম্য নয়, উল্লেখ করে লা ভিস্তা হোটেলের চেয়ারম্যান ও সিলেট চেম্বারের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব জানিয়েছেন, এই ঘটনার পর হোটেলের ব্যবস্থাপককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা করতে দেওয়ায় হোটেলের সংশ্লিষ্ট কর্মীদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এদের জবাব পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত রবিবার (২১ মার্চ) সকালে নগরীর আম্বরখানার ব্রিটানিয়া হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকার সময় ৯ প্রবাসী গ্রামের বাড়ি জকিগঞ্জে রোগী দেখতে চলে গিয়েছিলেন। এই ঘটনার পর জেলা প্রশাসন ব্রিটানিয়া হোটেলের সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের চুক্তি বাতিল করেছে।

লা ভিস্তা হোটেলে বিয়ের ঘটনা জানাজানির পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আ ন ম বদরুদ্দোজা।