শান্তিপূর্ণ ভোট হলে বিজেপি ডুগডুগি বাজাবে: মমতা

মিরর ডেস্ক : পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘ওরা আমার মাথায় মেরেছে, হাতে মেরেছে, পা বাকি ছিল, সেখানেও মেরেছে। পায়ে মারার পর ওরা ভেবেছিল আমি বেরোব না। ওরা জানে না, আমি ভাঙব, কিন্তু মচকাবো না। এক পায়ে যে শট মারব, তাতে মাঠের বাইরে ফেলে দেব। তিনি আরও বলেন, শান্তিপূর্ণ ও অবাধ নির্বাচন হলে বিজেপি ডুগডুগি বাজাবে।’

মঙ্গলবার পুরুলিয়ার কাশীপুরের সভায় বিজেপির বিরুদ্ধে এভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তব্য দেন তিনি। এদিন পুরুলিয়ার পারার সভাতেও একই সুরে কথা বলেন মমতা। তৃণমূল নেত্রী আরও বলেন, ‘বিজেপির ত্রিপুরা, আসামের ইশতেহার নিয়ে আসুন। সেখানে সবাইকে স্থায়ী কর্মী করবে বলেছিল। কিছুই হয়নি। তারা ইশতেহারে বলবে, করবে না, মিথ্যে কথা বলে বেড়াচ্ছে। তিনি বিরোধী শিবিরের উদ্দেশে বলেন, হিন্দু-মুসলমান করবেন না। হাতা-খুন্তি নিয়ে খেলা হবে।’

কর্মীদের উদ্দেশে মমতা বলেন, ‘ভোটের মেশিন ভালো করে পরীক্ষা করবেন। ৩০টা করে ভোট হলে মেশিন দু’বার অফ-অন করবেন। ভোটের মেশিন খারাপ হলে মেশিন ঠিক হলে ভোট দেবেন, তাড়াহুড়া করবেন না। ভোটের মেশিন পাহারা দিতে হবে। রাজ্য পুলিশ যদি নির্বাচন কমিশনের আওতায় হয়, তাহলে দিল্লির পুলিশকেও আওতায় আনতে হবে।’

তৃণমূল নেত্রী আরও বলেন, ‘বিজেপি বিদায় নেবে। আজকে গ্যাসের দাম ৯০০ টাকা। নরেন্দ্র মোদি সব খেয়ে নিয়েছে। ভোটের আগে ১০০ টাকা কমিয়ে দেবে, তারপর ভোট হলে আরও ৫০০ টাকা বাড়িয়ে দেবে। আমরা যদি বিনা পয়সায় চাল দিই, তাহলে গ্যাসও বিনা পয়সায় দিতে হবে।’

২৭ মার্চ থেকে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হবে। আট ধাপে ভোট গ্রহণ শেষে গণনা করা হবে ২ মে।