গেটম্যান নেই, ট্রেনে দুই পা-হাত কাটা পড়ল যুবকের

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় গেটম্যান না থাকায় রেল ক্রোসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনে ও ধাক্কায় হামিদুল ইসলাম (৩০) ও আতিকুল ইসলাম (২৮) গুরতর আহত হয়েছে। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (২০ মার্চ) বিকেলে হাতীবান্ধা উপজেলার সিংগীমারী দিঘীর হাট রেল ক্রোসিং এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

আহতরা হলেন, হাতীবান্ধা উপজেলার সিংগীমারী ইউনিয়নের ধুবনী গ্রামের মগু মিয়ার ছেলে ট্রাক্টরের সহকারী চালক হামিদুল ইসলাম ও দক্ষিণ গড্ডিমারী গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে ট্রাক্টরের চালক আতিকুল ইসলাম।

জানা গেছে, ট্রাক্টর চালক আতিকুল ইসলাম ও সহকারী চালক হামিদুল ট্রাক্টর নিয়ে বালু আনার জন্য উপজেলার দিঘীর হাট বাজার থেকে ধুবনী এলাকায় যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে দিঘীর হাট বাজার এলাকার রেল ক্রোসিং পার হওয়ার সময় লালমনিরহাট থেকে ছেড়ে আসা পাটগ্রামগামী করতোয়া এক্সপ্রেস নামের একটি ট্রেন তাদের ট্রাক্টরটিকে ধাক্কা দেয়। এতে করে হামিদুলের দুই পা ও ডান হাত কাটা যায় আর আতিকুলের মাথা ফেটে যায়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের দ্বায়িত্বরত চিকিৎসক প্রাথমিক শেষে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের দ্বায়িত্বরত চিকিৎসক খালেদা পারভিন বলেন, তাদের দুজনের মধ্যে একজনের দু পা ও একটি হাত ট্রেনে কাটা পড়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। অপরজন মাথায় আঘাত পেয়েছেন। তাদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুরে পাঠানো হয়েছে।

সিংগীমারী ইউপি পরিষদ চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন দুলু বলেন, আহতদের রংপুরে পাঠানো হয়েছে। তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য সার্বিকভাবে খোঁজ-খবর ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়।