৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে লংমার্চ

ঢাকা : দেশে প্রবাহমান তিস্তাসহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে ঢাকা থেকে তিস্তা অভিমুখে লংমার্চ শুরু করেছে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)। শুক্রবার (১৯ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে এই লংমার্চের উদ্বোধনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে নেতারা বলেন, নদীগুলোই বাংলাদেশের প্রাণপ্রবাহ। কিন্তু আন্তর্জাতিক সব আইন ও নীতি লঙ্ঘন করে ভারত ৫৪টি নদীর উজানে বাঁধ দিয়ে একতরফা পানি প্রত্যাহার করে নেওয়ার আগ্রাসী তৎপরতার ফলে পানির প্রবাহ কমে গেছে।

বক্তারা বলেন, চীন, নেপাল, ভুটান ও ভারত থেকে আসা নদীগুলো বাংলাদেশে প্রবেশ করে জালের মতো ছড়িয়ে গেছে। মানবদেহের শিরা-উপশিরার মতো ছড়িয়ে থাকা নদী ও পলি দিয়ে গঠিত বাংলাদেশ রাষ্ট্রটি আজ পানির অভাবে মরুকরণের হুমকির মুখে। এই অভাব প্রাকৃতিক কারণে নয়, মানুষের সৃষ্টি।

তারা আরও বলেন, তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যাসহ ভারত থেকে আগত সব আন্তর্জাতিক নদীর পানিবণ্টনের বিষয়টি ভারতের শাসকগোষ্ঠী রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশকে পানির ন্যায্য হিস্যা থেকে বঞ্চিত করছে।

পরে সমাবেশ থেকে ১৯ থেকে ২১ মার্চ পর্যন্ত তিনদিন ব্যাপী ঢাকা-তিস্তা লংমার্চের উদ্বোধন করা হয়। সমাবেশে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্ব বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন, কেন্দ্রীয় পাঠচক্রের সদস্য নিখিল দাস, জুলফিকার আলী ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক প্রমুখ নেতারা।