মোদির ঢাকা সফরের আগেই পানিবণ্টন নিয়ে আলোচনা: এনডিটিভি

মিরর ডেস্ক : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ২৬ মার্চ ঢাকা সফরে আসার কথা ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। এসময় দুই পক্ষের আলোচনায় অভিন্ন নদীগুলোর পানিবণ্টন ইস্যু আবারও উঠে আসতে পারে। সে কারণে মোদির সফরের আগেই বহুল আলোচিত বিষয়টি সমাধানে বৈঠকে বসছেন ভারত-বাংলাদেশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

সোমবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, আজ মঙ্গলবার দিল্লিতে বৈঠকে বসছেন ভারত ও বাংলাদেশের পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন দেশটির জলশক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব পঙ্কজ কুমার এবং বাংলাদেশের পক্ষে থাকবেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব কবির বিন আনোয়ার।

সূত্রের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমটি বলছে, দ্বিপাক্ষিক এই বৈঠকে মনু, মুহুরী, খোয়াই, গোমতী, দুধকুমার ও ধরলা নদীর পানিবণ্টন নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা।

ফেনী নদী থেকে ত্রিপুরার সাব্রুম শহরের জন্য পানি নেয়ার বিষয়েও আলোচনা হতে পারে। এমনকি, সুরমা নদী থেকে পানি নেওয়ার বিষয়ে সম্ভাব্য সমঝোতা স্মারক নিয়ে আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে সূত্রটি।

তবে এনডিটিভির ওই প্রতিবেদনে ভারত-বাংলাদেশের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে তিস্তার পানিবণ্টন সংক্রান্ত কোনো আলোচনা হবে কি-না, তার উল্লেখ নেই।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, বিভিন্ন পর্যায়ে পানি সংক্রান্ত সমস্যাগুলো সমাধানে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে একটি শক্তিশালী ব্যবস্থা রয়েছে। এ নিয়ে ১৯৭২ সাল থেকে কাজ করছে ইন্দো-বাংলাদেশ যৌথ নদী কমিশন (জেআরসি)।

অভিন্ন নদী ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সর্বোচ্চ সুবিধা অর্জনে কার্যকর যৌথ প্রচেষ্টা নিশ্চিত করতে যোগাযোগ বজায় রাখার লক্ষ্যে এই কমিশন প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। এর আওতায় দুই দেশের মধ্যে মন্ত্রী, সচিব এবং প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ পর্যায়ে বৈঠক হয়ে থাকে।