মিথ্যা পাপের দুয়ার খুলে দেয়

মিরর ডেস্ক : মিথ্যা মহাপাপ জেনেও মানুষ বিভিন্ন সময় পার্থিব সফলতার আশায় মিথ্যার আশ্রয় নেয়। অথচ এই মিথ্যাই মানুষের সফলতার সবচেয়ে বড় অন্তরায়। রাসুল (সা.) এ ব্যাপারে তাঁর উম্মতদের সতর্ক করেছেন। আবদুল্লাহ বিন মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত বিশাল একটি হাদিসের একাংশে উল্লেখ আছে, …‘সাবধান! তোমরা মিথ্যা পরিহার করো। কেননা মিথ্যা দ্বারা না সফলতা অর্জন করা যায়, না অর্থহীন অপলাপ থেকে বাঁচা যায়।’ (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪৬)

মিথ্যা মুনাফিকের অভ্যাস : মিথ্যা বলা বা মিথ্যার আশ্রয় নেওয়া মুনাফিকের কাজ। হাদিসে মুনাফিক চেনার যে কয়টি সূত্র উল্লেখ আছে, তার মধ্যে মিথ্যা একটি। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, মুনাফিকের চিহ্ন তিনটি : ১) যখন কথা বলে মিথ্যা বলে; ২) যখন অঙ্গীকার করে ভঙ্গ করে এবং ৩) আমানত রাখা হলে খেয়ানত করে। (বুখারি, হাদিস : ৩৩)

এ থেকে বোঝা যায় যে এটি কতটা ঘৃণিত অভ্যাস। প্রিয় নবী (সা.) এই অভ্যাসকে খুব বেশি ঘৃণা করতেন। কারো মধ্যে মিথ্যা বলার প্রবণতা থাকলে তিনি তাদের ভিন্ন চোখে দেখতেন। আয়েশা (রা.) বলেন, মিথ্যা থেকে অধিক ঘৃণিত চরিত্র রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর কাছে আর কিছুই ছিল না। রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর সামনে কেউ মিথ্যা বললে তা অবিরত তাঁর মনে থাকত, যে পর্যন্ত না তিনি জানতেন যে মিথ্যাবাদী তাঁর মিথ্যা কথন থেকে তাওবা করেছে। (তিরমিজি, হাদিস : ১৯৭৩)

মিথ্যা পরিহারের নির্দেশ : রাসুল (সা.) মিথ্যাকে খুব ঘৃণার দৃষ্টিতে দেখেছেন। কারণ হলো, আল্লাহ সব মুসলিমকে তা পরিহারের আদেশ দিয়েছেন। পবিত্র কোরআন মহান আল্লাহ তার বান্দাদের মিথ্যা পরিহারের আদেশ করেছেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘এবং (তোমরা) মিথ্যা কথা পরিহার করো।’ (সুরা : হজ, আয়াত : ৩০)

মিথ্যাবদীর জন্য আল্লাহর ক্রোধ : বান্দার জন্য আল্লাহর রহমত অপরিসীম। কিন্তু তিনি মিথ্যাবাদীদের ভীষণ ঘৃণা করেন। তাই তিনি মিথ্যাবাদীদের হিদায়াত পর্যন্ত দেন না। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই আল্লাহ তাকে হিদায়াত দেন না, যে সীমা লঙ্ঘনকারী, মিথ্যাবাদী’। (সুরা : গাফির, আয়াত : ২৮)

মিথ্যা জাহান্নামের পথ দেখায় : এ কারণেই রাসুল (সা.)-ও মিথ্যাবাদীদের ভীষণ অপছন্দ করতেন। যে অভ্যাসটিকে মহান আল্লাহ ও তাঁর রাসুল এত অপছন্দ করে সে অভ্যাস কখনোই কল্যাণ বয়ে আনে না; বরং তা মানুষকে ধ্বংসের দারপ্রান্তে নিয়ে যায়। মানুষের দুনিয়া-আখিরাত দুটোই শেষ করে দেয়।

আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমরা অবশ্যই সত্যের পথ অবলম্বন করবে। কেননা সততাই মানুষকে কল্যাণের পথে নিয়ে যায়। আর কল্যাণ জান্নাতের দিকে নিয়ে যায়। কোনো মানুষ প্রতিনিয়ত সত্য কথা বলতে থাকলে এবং সত্যের প্রতি মনোযোগী থাকলে শেষ পর্যন্ত সে আল্লাহ তাআলার দরবারে পরম সত্যবাদী হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়। তোমরা মিথ্যাকে অবশ্যই পরিহার করবে। কেননা মিথ্যা (মানুষকে) পাপের পথ দেখায়, আর পাপ জাহান্নামের পথে নিয়ে যায়। কোনো বান্দা প্রতিনিয়ত মিথ্যা বলতে থাকলে এবং মিথ্যার প্রতি ঝুঁকে থাকলে শেষ পর্যন্ত সে আল্লাহ তাআলার দরবারে চরম মিথ্যাবাদী হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়। (তিরমিজি, হাদিস : ১৯৭১)

মহান আল্লাহ সবাইকে এই ঘৃণিত অভ্যাস ত্যাগ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।