পশ্চিমবঙ্গে ভোট আট দফায়, ক্ষুব্ধ মমতা

মিরর ডেস্ক : পশ্চিমবঙ্গ, কেরল, তামিলনাড়ু, আসাম এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পুদুচেরিতে বিধানসভা ভোটের তফসিল ঘোষণা দিল ভারতের নির্বাচন কমিশন।

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল কুমার অরোরা আজ দিল্লিতে এই তফসিল ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছেন, আট দফায় হতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন। আগামী ২৭ মার্চ থেকে শুরু হতে চলেছে ভোট গ্রহণ। ফল ঘোষণা করা হবে ২ মে।

২৭ মার্চের পর পরের দফাগুলি যথাক্রমে ১ এপ্রিল, ৬ এপ্রিল, ১০ এপ্রিল, ১৭ এপ্রিল, ২২ এপ্রিল, ২৬ এপ্রিল এবং শেষ দফার ভোট গ্রহণ ২৯ এপ্রিল৷ ২ মে হবে ভোট গণনা এবং ফলপ্রকাশ।

এ দিন যে পাঁচটি রাজ্যে নির্বাচনের ঘোষণা হয়েছে, তার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গেই ৮ দফায় নির্বাচন হচ্ছে৷ এ ছাড়া আসামে ভোট হবে ৩ দফায়। তামিলনাড়ু এবং কেরলের সব আসনে ভোট হবে একদিনেই।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গের জঙ্গলমহলের জেলাগুলি দিয়েই এবার পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন শুরু হচ্ছে৷ প্রথম দুই দফাতেই জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে ভোট হবে৷ শুধুমাত্র দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ভোট হবেই তিন ভাগে। কলকাতায় ভোট হবে ২৬ এবং ২৯ এপ্রিল।

ভোটের দিন ঘোষণা হতেই তৃণমূল প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশ্ন করেন , “৮ দফায় ভোট কেন? কাকে সুবিধা করে দেওয়ার জন্য?”

মমতা কমিশনের উদ্দেশ্য আরো বলেন, “ধন্যবাদ জানাচ্ছি। মুবারক জানাচ্ছি। কোথাও কোথাও একটা প্রশ্ন এসে যাচ্ছে। বিহারে ২৪০টি আসনে ৩টি দফায় নির্বাচন। আসামে ৩টি দফায়। তামিলনাড়ুতে ২৩৪টি আসনে একদিনে নির্বাচন। কেরলে সিপিএমের সরকার এক দফায়। বাংলায় ২৯৪টি আসন। তারা রাজ্যকে সুবিচার না দিলে কোথায় যাবে জনগণ?”

মমতা আরো বলেন , বিজেপির অনুরোধে আট দফা ভোট করা হয়েছে। তবে কোনো লাভ হবে না হেরে ভূত হবে বিজেপি।