নানা ঘাটের জল খাওয়া সাপ নিয়ে বিজেপি কী করবে?

মিরর বিনোদন : সিনেমার মতো জবরদস্ত সংলাপ দিয়ে রাজনীতির মাঠ গরম করতে চেয়েছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। কিন্তু হিতে বিপরীতে হতে সময় লাগেনি। কলকাতার ‘মহাগুরু’কে নিয়ে হাসাহাসি হচ্ছে বেশ!

‘আমি জাত গোখরো, এক ছোবলেই ছবি’— এমন গরমাগরম সংলাপ দিয়েই রবিবার নরেন্দ্র মোদির সমাবেশ মাতিয়েছিলেন মিঠুন। সেই সংলাপই যেন কাল হলো! সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে নিয়ে মিমের ছড়াছড়ি।

এমনকি এই ‘জাত গোখরো’ প্রসঙ্গে কথা বলার সুযোগ ছাড়ছেন না লেখিকা তসলিমা নাসরিনও। খানিক ব্যঙ্গাত্মক সুরেই প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন, “নানান ঘাটের জল খাওয়া সাপ-খোপ নিয়ে বিজেপি কী করবে? সেটাই ভাবছি।”

এর আগে একাধিকবার দল বদলে রাজনৈতিক মহলের অনেকেরই বিরাগভাজন হয়েছেন মিঠুন। পদ্ম শিবিরে যোগদানের পর প্রশ্ন উঠেছে, তার রাজনৈতিক আদর্শগত স্থিরতা নিয়েও! বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের শাসক দলের একাধিক নেতা-মন্ত্রীও। এবার সেই প্রেক্ষিতেই সদ্য গেরুয়া মন্ত্রে দীক্ষিত হওয়া মিঠুনকে কটাক্ষ করলেন বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

ফেসবুক পোস্টে লেখেন, “নানান ঘাটের জল খাওয়া সাপ-খোপ নিয়ে বিজেপি কী করবে? সেটাই ভাবছি। সাপ, তাও আবার পদ্ম গোখরো, কাকে ছোবল মারতে গিয়ে কাকে মারে, কে জানে! কেন যে বেচারারা কেঁচো খুঁড়তে গিয়েছিল!”

‘নানান ঘাটের জল খাওয়া’ বলতে বাম, তৃণমূল হয়ে বিজেপিতে মিঠুনের নাম লেখানোর বিষয়টি আবারও ওঠে আসলো আলোচনায়।