বদলে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের ভেন্যু

মিরর স্পোর্টস : বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের ফাইনালে উঠেছে নিউজিল্যান্ড ও ভারত। আগামী জুনের ১৮ তারিখ শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে এ দুই দল। তবে ম্যাচটির নির্ধারিত সূচির প্রায় তিন মাসেরও বেশি সময় আগে বদলে গেছে ভেন্যু।

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ১৮ জুন ক্রিকেটের মক্কাখ্যাত ঐতিহাসিক লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে হওয়ার কথা ছিল বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। তবে এখন করোনাভাইরাসজনিত কারণে সেটি এখন লর্ডসে হবে না। এর বদলে ফাইনাল ম্যাচটি খেলা হবে সাউদাম্পটনের আগাস বোল স্টেডিয়ামে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের ভেন্যু বদলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, মূলত স্টেডিয়ামের খুব কাছেই আবাসন হোটেল থাকায় সাউদাম্পটনকেই বেছে নেয়া হয়েছে ফাইনালের ভেন্যু হিসেবে।

লর্ডস থেকে ফাইনাল সরিয়ে নেয়ার গুঞ্জন শুরুর পর বিকল্প ভেন্যু হিসেবে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ড কিংবা বার্মিংহামের এজবাস্টনও ছিল দৌড়ে। তবে এ দুটোকে পেছনে ফেলে মাঠে বিদ্যমান সুযোগ সুবিধার কারণে শেষপর্যন্ত টিকে গেছে সাউদাম্পটনের আগাস বোল। যদিও এখনও পর্যন্ত আইসিসি থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

তবে ইন্ডিয়া টুডেকে গাঙ্গুলি বলেছেন, ‘সাউদাম্পটনে হতে যাওয়া ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে মাঠে উপস্থিত থাকতে মুখিয়ে রয়েছি আমি। হ্যাঁ! সাউদাম্পটনেই। লর্ডসের কথা অনেক আগে ঠিক করা হয়েছিল। এখন করোনার কারণে এবং সাউদাম্পটনে কাছাকাছি হোটেল থাকায়, এখানেই হবে ফাইনাল। করোনা লকডাউনের পর ইংল্যান্ডের বেশিরভাগ ম্যাচ এখানেই হয়েছে।’

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল জেতার দিকে জোর দিয়ে গাঙ্গুলি বলেন, ‘প্রত্যেকটি শিরোপারই আলাদা মর্যাদা রয়েছে। পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপের গৌরব অন্যরকম। আর এদিকে করোনা মহামারীর কারণে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপটা খানিক জটিল হয়ে গেছে। যখন সব দল সমানসংখ্যক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে, তখন আবার দেখব।’