সুদ ব্যবসায়ী নাজমা খাতুনের বিরুদ্ধে আরও দুই প্রতারণার মামলা

পার্বতীপুর (দিনাজপর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের পার্বতীপুরে সুদের কারবারি নাজমা খাতুনের বিরুদ্ধে আরও দুইটি প্রতারণার মামলা দায়ের হয়েছে। গত ১ মার্চ দিনাজপুরের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৫(পার্বতীপুর) মামলা দু’টি করেছেন পার্বতীপুরের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যলয়ের সহকারী শিক্ষিকা লায়লা বানু (৩৮)। উভয় মামলার তদন্তভার প্রদান করা হয়েছে সিআইডিতে।

মামলার বাদী লায়লা বানু বলেছেন, সাংসারিক প্রয়োজনে আমি ২০১৬ ও ২০১৭ সালে পর্যায়ক্রমে ২ লাখ টাকা ঋণ গ্রহণ করি নাজমা খাতুনের কাছে। দুই বছরে সুদসহ ১১ লাখ ৮হাজার টাকা পরিশোধ করার পর নাজমা খাতুনের কাছে জামানত হিসেবে রাখা ৩শ টাকার নন জুডিশিয়াল স্বাক্ষর করা ফাঁকা স্ট্যাম্প, স্বাক্ষর করা চেকের পাতা ও চেকের বই ফেরৎ চাইলে সে আরও ২ লাখ ৯২ হাজার টাকা দাবি করে। পরে আমার বেতন বোনাসের ৭৮ হাজার টাকা গোপনে তুলে নেয়। আমি তাকে আর কোন টাকা না দেওয়ার কথা জানালে পার্বতীপুর ও রাজশাহী দু’টি সাজানো পাওনাদার দিয়ে আমার বিরুদ্ধে পৃথক দু’টি উকিল নোটিশ করে।

লায়লা বানু আরও বলেন, নাজমা খাতুনের কাছে গত আট বছরে ঋণ নিয়ে দুই শতাধিক স্কুল শিক্ষক ও ৫০জনেরও বেশী অন্য পেশার মানুষ নিঃস্ব হয়েছে। এদের মধ্যে ১২জন এর আগে নাজমা খাতুনের বিরুদ্ধে প্রতারনার মামলা দায়ের করেছেন।