৩ দিন ধরে পানি নেই হিলি হাসপাতালে, রোগীদের দুর্ভোগ চরমে

হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের হাকিমপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মহিলা ওয়ার্ডে ৩ দিন ধরে পানি না থাকায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন রোগীরা। হাকিমপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তৌহিদ আল হাসান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ভুক্তভোগী রোগীদের অভিযোগ, হাসপাতালে তিনদিন ধরে পানি নেই। এ জন্য খুব কষ্ট পোহাতে হচ্ছে তাদের। মহিলা ওয়ার্ডের ২৮ নম্বর বেডের রোগী আখলিমা বেগম বলেন, ‘তিন ধরে আমাদের এই ওয়ার্ডে পানি নেই। কয়েক দিন ধরে খুব কষ্টে আছি। নিরুপায় হয়ে আজ বাড়ি চলে যাচ্ছি।’ ২৬ নম্বর বেডের কহিনুর বেগম বলেন, ‘আমি অসুস্থ। পানি নিতে বার বার নিচে যেতে হচ্ছে। টয়লেটের জন্য অন্য ওয়ার্ডে যাচ্ছি।’ ১৪ নম্বর বেডের রোগীর মেয়ে পরিবানু বলেন, ‘হাসপাতালের লোকজনকে বার বার বলার পরও, পানির কোনো ব্যবস্থা করছে না। আমার মা বয়স্ক অসুস্থ মানুষ, তাকে নিয়ে অন্য ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া-আসা বড় কষ্টকর ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। হাসপাতালের লোকজন বলছেন, এটা ঠিক করতে ১০ থেকে ১৫ দিন সময় লাগবে।’ ২৪ নম্বর বেডের মল্লিকা বেগম বলেন, ‘এত কষ্ট করা যায়? অসুস্থ মানুষ, শরীর চলে না। তারপর আবার পানির কষ্ট। থাকবো না, চলে যাবো। বাড়িতেই ভালো থাকবো।’

মহিলা ওয়ার্ডের নার্স শিরিনা আক্তারের কাছে পানি নেই কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মোটর পুড়ে গেছে, তাই পানি নেই। এটা কবে যে ঠিক হয় তার ঠিক নেই।’ হাকিমপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জানান, হাসপাতালের বড় পাম্পটি পুড়ে গেছে। মেরামত চলছে, আশা করি, দুই-একদিনের মধ্যে তা ঠিক হলেই পানির সমস্যা সমাধান হবে।