করোনার অজুহাতে বাংলাদেশ সফর থেকে সরে দাঁড়ালেন যারা

মিরর স্পোর্টস : বাংলাদেশ সফরে পূর্ণ শক্তির দলই পাঠানো হবে- এই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের প্রতিশ্রুতি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারেনি তারা। করোনাভাইরাসের অজুহাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা ক্রিকেটারদের অধিকাংশই আসছে না বাংলাদেশ সফরে।

করোনার মধ্যেও যে সব ক্রিকেটার ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড সফর করতে পেরেছে, সে সব ক্রিকেটারই বাংলাদেশে আসতে অস্বীকৃতি জানালো। যার ফলে দ্বিতীয় সারির একটি দলই বাংলাদেশে পাঠাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

টেস্ট দলে কিছু পরিচিত মুখ থাকলেও ক্যারিবীয়দের ওয়ানডে দলটা একেবারেই অপরিচিত। চেনা মুখ নাই বললেই চলে। অর্থ্যাৎ, করোনা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজে মাঠে নামলেও যথাযত প্রতিপক্ষ পাচ্ছে না। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে দেয়া হয়েছে বাংলাদেশ সফরে টেস্ট দলের নেতৃত্ব এবং জ্যাসন মোহামেদকে দেয়া হয়েছে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড তাদের পক্ষ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, কোভিড-১৯ এর কারণে ব্যক্তিগত ভয় থেকেই নিজেদের নাম প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিয়মিত দলের ১৩জন ক্রিকেটার। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড খেলোয়াড়দের এ ব্যপারে স্বাধীনতা দিয়েছিল। সফরে যাওয়া না যাওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার ব্যপারে।

করোনার কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের যে সব খেলোয়াড় বাংলাদেশে আসতে রাজি নন, তারা হচ্ছেন – জেসন হোল্ডার, কাইরন পোলার্ড, ড্যারেন ব্র্যাভো, সামারাহ ব্রুকস, রস্টোন চেজ, শেলডন কটরেল, এভিন লুইস, সাই হোপ, শিমরন হেটমায়ার এবং নিকোলাস পুরান। ফ্যাবিয়েন অ্যালেন এবং শেন ডরউইচ- ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে বাংলাদেশে আসবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন।