চেয়ারম্যানকে গ্রেফতারের দাবীতে মহাসড়ক অবরোধ

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকারকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আইনের আওতায় আনা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের আল্টিমেটাম ঘোষনা করেছে সম্মিলিত নাগরিক কমিটি।

মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে সম্মিলিত নাগরিক কমিটির আয়োজনে বীরগঞ্জ বিজয় চত্বরের সম্মুখ সড়কে ঘন্টাব্যাপী বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে আন্দোলনকারীরা আধাঘন্টা দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়ক অবরোধ কওে রাখে। এই মানববন্ধনে সহশ্রাধিক নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে ২২ ডিসেম্বর উপজেলার বলরামপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রবাসী বাংলাদেশী এক মহিলাকে নিজপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকার তার নিজের ইট ভাটার অদূরে পশ্চিমে জনৈক আব্দুর রশিদের শয়ন ঘরের নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। পরদিন ২৩ ডিসেম্বর ধর্ষণের শিকার ওই নারী চেয়ারম্যান খালেক সরকারকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মানববন্ধনে বীরগঞ্জ উপজেলা সম্মিলিত নাগরিক কমিটির আহবায়ক আসলামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শাহিনুর ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তারা বলেন, ইতিপূর্বে এই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আরো ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু সেই সময় তার বিচার না হওয়ায় আরও বেপরোয়া পড়ে পড়েছে। এধরনের জনপ্রতিনিধি আমাদের দরকার নেই। আমরা তাকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানাচ্ছি। আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে তাকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় না আনা হলে বীরগঞ্জবাসী বৃহত্তর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান জানান, ধর্ষক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় পন্যগ্রাফি আইনে ও নারী নির্যাতন আইনের মামলা দায়ের হয়েছে। চেয়ারম্যানকে আটকের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে।