ফুলবাড়ীতে ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : ঘন কুয়াশা, হিমেল হাওয়া আর হাড় কাঁপানো শীতে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গত এক সপ্তাহ থেকে দিনের বেলায় সূর্যের মুখ দেখা যাচ্ছে না।কাজে বের হতে না পেয়ে বিপাকে পড়েছে দিনমজুর, শ্রমিক শ্রেণির কর্মজীবী ও ছিন্নমূল অভাবী মানুষ। ঘন কুয়াশার কারণে ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে উপজেলার ইরি-বোরো বীজতলা এবং রবি ফসল। রাস্তাঘাটে হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে যানবাহন।

শীতের কারণে খেত খামার, অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ সর্বত্রই স্থবিরতা বিরাজ করছে। শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকেই খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে। তিন লক্ষাধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত এ উপজেলায় সরকারি ও বেসরকারিভাবে কিছু কম্বল বিতরণ করা হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রুম্মান আক্তার জানান, চলতি মৌসুমে বোরো চাষের জন্য ৯৫০ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) পর্যন্ত ৯৬৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। ঘন কুয়াশার ঝুঁকি থেকে ফসল বাঁচাতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান অব্যাহত রয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল ইসলাম জানান, সরকারিভাবে উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নে ৩ হাজার ২২০ টি কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। তবে পৌরসভার জন্যও ৪৬০টি কম্বল বরাদ্দ আসলেও পৌরসভা নির্বাচনের কারণে সেটি এই মুহূর্তে বিতরণ করা যাচ্ছে না। তবে আরো ৬ লাখ টাকা কম্বল কেনার জন্য বরাদ্দ পাওয়া গেছে। দু-একদিনের মধ্যে কম্বল কেনা এবং বিতরণ করা হবে।