৩৬ রানে ইনিংস শেষ, টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বনিম্ন স্কোর ভারতের

মিরর স্পোর্টস :  টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাস সর্বনিম্ন স্কোর ভারতের। অ্যাডিলেড ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬ রানে ৯ উইকেট হারানোর পর চোট পেয়ে মোহম্মদ শামি মাঠ ছাড়ায় ভারতীয় ইনিংস শেষ হয়ে যায়। ফলে বিশাল এক লজ্জার সাক্ষী থাকল কোহলির ভারত। এর আগে টেস্ট ক্রিকেটে ভারতের সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ৪২।

১৯৭৪ সালে লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪২ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল ভারত। সেবারও দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় ব্যাটিংয়ের ভয়াবহতার সাক্ষী থেকে ছিল ক্রিকেটেবিশ্ব। প্রথম ইনিংসে ৩০২ রানের বড় স্কোর করলেও ফলোঅন করে ৪২ রান শেষ হয়ে গিয়েছিল ভারত। সেবার ভারতের ৯ উইকেট পড়েছিল। কারণ চোটের জন্য মাঠে নামতে পারেননি ভগবত চন্দ্রশেখর।

আর শনিবার অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৪৬ বছর আগের রেকর্ড ভেঙে লজ্জার ইতিহাস গড়ল কোহলি অ্যান্ড কোং। এদিন ৩৬ রানে ৯ উইকেটে শেষ ভারতীয় ইনিংস। কারণ প্যাট কামিন্সের বল হাতে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন শামি। ফলে ৩৬ রানে শেষ হয়ে যায় ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস। জোস হ্যাজেলউড ও প্যাট কামিন্সের ভয়ংকর বোলিংয়ের সামনে অসহায় আত্মসর্মপণ ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের।

তবে ওয়াদেকরের ভারতীয় দলে একজন ব্যাটসম্যান দু’ অংকের রানে পৌঁছেছিলেন। ১৮ রানে অপরাজিত ছিলেন একনাথ সোলকর। কিন্তু এদিন কোহলির ভারতীয় দলে কোনও ব্যাটসম্যান দু’ অংকের রানে পৌঁছতে পারেননি। ভারতীয় ইনিংসের সর্বোচ্চ স্কোর মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ৯ রান। স্বপ্নের বোলিং হ্যাজেলউডের। ৫ ওভারে মাত্র ৮ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট নেন ২৯ বছরের ডানহাতি পেসার। ভারতীয় ইনিংসের বাকি চারটি উইকেট নেন কামিন্স।

ভারতীয় ক্রিকেটের আজ শনিবারের সকালটা ছিল ভয়াবহ। ৯ রানে এক উইকেট নিয়ে খেলা শুরু করে প্রথম আধ ঘণ্টাতেই টিম ইন্ডিয়ার স্কোর হয় ৬ উইকেটে ১৯। এদিন বোর্ডে মাত্র ১০ রান যোগ করে পাঁচজন ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। কামিন্স ও হ্যাজেলউডের ভয়ংকর বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।