মাস্ক ছাড়া নারীর সঙ্গে সেলফি, আইন ভাঙার মাশুল গুনলেন চিলির প্রেসিডেন্ট!

মিরর ডেস্ক : আইনের চোখে সবাই সমান! বিভিন্ন সময় এই প্রবাদবাক্যটি শোনা গেলেও বাস্তবে এর প্রমাণ মেলে খুব কম। তবে সম্প্রতি এক ব্যতিক্রমী ঘটনা ঘটেছে চিলিতে। সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক না পড়ার কারণে ৩ হাজার ৫০০ ডলার জরিমানা করা হয়েছে চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্টিয়ান পিনেরাকে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, কয়েকদিন আগে চিলির কাচাগুয়া সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে গিয়েছিলেন চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্টিয়ান পিনেরা। সেখানে ঘোরার সময় তাঁর সঙ্গে সেলফি তোলার আবেদন জানান এক অপরিচিত নারী। তাতে সাড়া দেন চিলির প্রেসিডেন্টও। আর তাতেই ঘটে যায় বিপত্তি। ওই নারী সেলফিটি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করার পরেই দেখা যায় যে চিলির প্রেসিডেন্টের মুখে কোনো মাস্ক নেই। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় নেটদুনিয়ায়। দেশের প্রধান হওয়ার পরেও নিজেই কেন সরকারি নিয়ম ভাঙলেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। তবে শুধু সেখানেই শেষ হয়নি। সরকারি স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ৩ হাজার ৫০০ ডলার জরিমানাও করা হয়েছে চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্টিয়ান পিনেরাকে।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে চিলিতে ক্রমশ আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখনও পর্যন্ত সেখানে ৫ লাখ ৮১ হাজার ১৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আর মৃত্যু হয়েছে ১৬ হাজার ৫১ জনের। এর ফলে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে জনসমক্ষে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কেউ যদি সেই নিয়ম ভাঙে তাহলে জরিমানার পাশাপাশি জেলের পাঠানোর সিদ্ধান্তও নিয়েছে প্রশাসন। আর সেই নিয়ম ভাঙার জেরেই এবার খোদ দেশের প্রেসিডেন্টকেই জরিমানা দিতে হল।

চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্টিয়ান পিনেরা জানান, সমুদ্রসৈকত তীরবর্তী অভিজাত শহর কাচাগুয়ায় নিজের বাড়ির কাছের সমুদ্রসৈকতে হাঁটতে গেলে এক নারী তাকে চিনে ফেলেন ও একসঙ্গে ছবি তোলার অনুরোধ জানান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া সেলফিতে কাছাকাছি দাঁড়ানো পিনেরা ও নারী দুজনের মুখেই মাস্ক দেখা যায়নি।

উল্টাপাল্টা কাজের জন্য চিলির এ ডানপন্থি প্রেসিডেন্টের বেশ খ্যাতি আছে। গত বছর রাজধানী সান্তিয়াগোতে অসাম্যর বিরুদ্ধে লাখো মানুষের তুমুল প্রতিবাদের সময়ও পিনেরাকে একটি পিজা পার্টিতে হাসিমুখে ছবি তুলতে দেখা গেছে।