কেমোথেরাপি নেওয়ার অবস্থায় নেই আবদুল কাদের

মিরর বিনোদন : ক্যানসার চিকিৎসায় কেমোথেরাপি দেওয়ার মতো অবস্থায় নেই অভিনেতা আবদুল কাদের। বর্তমানে তার তাঁর শরীর বেশি দুর্বল। তিনি এখন চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতালে তাঁকে ‘কিছুটা’ সুস্থ করে তোলার জন্য সব রকম চেষ্টা করছেন চিকিৎসকেরা। যেন দেশে আনা যায় তাঁকে। এই অভিনেতার পরিবারের সদস্যরা এমনটাই জানালেন।

গত ১৫ নভেম্বর এই অভিনেতার পরিবারকে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবর দেন চেন্নাইয়ের চিকিৎসকেরা। ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার কথা শুনে এই অভিনেতার পরিবার থেকে চিকিৎসার সব দায়িত্ব চিকিৎসকদের ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তখন থেকেই ভাবছিল কেমো দেবে। কিন্তু কাদেরের শারীরিক অবস্থা দুর্বল হওয়ায় গতকাল রাত পর্যন্ত চিকিৎসকেরা পর্যবেক্ষণে রাখেন। পরে রাতেই এই অভিনেতার পরিবারকে জানিয়ে দেন, এই অভিনেতার শারীরিক ক্ষমতা বিচারে কেমোথেরাপি দেওয়া যাবে না।

আবদুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা জানতে যোগাযোগ করা হলে চেন্নাইয়ের ক্রিশ্চিয়ান মেডিকেল হাসপাতাল থেকে শুক্রবার এই অভিনেতার পুত্রবধূ জাহিদা ইসলাম জেমি জানান, তাঁর শ্বশুর এই মুহূর্তে কেমোথেরাপি দেওয়ার মতো অবস্থায় নেই। কারণ, এই থেরাপি সহ্য করার মতো যে শারীরিক শক্তি দরকার, তা এই অভিনেতা সহ্য করতে পারবেন না।

জেমি চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে বলেন, ‘বাবার শরীরে শক্তি কম। শেষ পর্যন্ত তাঁকে কেমো দেওয়া হচ্ছে না। বাবাকে যেন বাংলাদেশে নিতে পারি, এই জন্য চিকিৎসকেরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন কিছুটা সুস্থ করতে। তাঁরা বলেছেন, একটু বেটার করতে আরও দুই দিন সময় লাগবে। এই অভিনেতা এখন কিছুই খাচ্ছেন না। কিছু খেলেই তাঁর বমি হয়। তাঁকে এখনো স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে। গতকাল থেকে তাঁর রক্তের হিমোগ্লোবিন ৩ থেকে ৫–এর মধ্যে ওঠানামা করছে। জেমি জানান, ২০ ডিসেম্বর দুপুরের একটি ফ্লাইটে এই অভিনেতাকে ঢাকায় নিয়ে আসার কথা রয়েছে। ঢাকায় ফেরার পরই আবদুল কাদেরকে সঙ্গে সঙ্গে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হবে।

বেশ কিছুদিন ধরে আবদুল কাদের অসুস্থ ছিলেন। ঠিকমতো খেতে পারছিলেন না। বিভিন্ন হাসপাতালে একাধিকবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেও তাঁর কোনো রোগ ধরা পড়ছিল না। পরে সর্বশেষ পুরো শরীর সিটি স্ক্যান করে জানা যায়, এই অভিনেতার টিউমার হয়েছে। টিউমার ধরা পড়ার পর পারিবারিক সিদ্ধান্তে ৮ ডিসেম্বর তাঁকে চেন্নাইয়ের ক্রিশ্চিয়ান মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এই হাসপাতালে আবারও পরীক্ষা–নিরীক্ষা করা হলে ১৫ ডিসেম্বর ডাক্তাররা বোর্ড মিটিং করে এই অভিনেতার পরিবারকে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবর দেন। এই অভিনেতার ক্যানসার বর্তমানে সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে। এটি এখন চতুর্থ স্টেজে রয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালে ধারণা দেওয়া হয়েছিল তাঁর শরীরে ক্যানসার হতে পারে। সে আশঙ্কাই ঠিক হলো চেন্নাইয়ের হাসপাতালের রিপোর্টে।

আবদুল কাদের নাটক, বিজ্ঞাপন, চলচ্চিত্র তিন মাধ্যমেই জনপ্রিয় ছিলেন। জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদির নিয়মিত শিল্পী ছিলেন তিনি। তিনি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের লেখা ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিক নাটকে ‘বদি’ চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন। অভিনয়ের পাশাপাশি বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের কাজও করেছেন এ সফল অভিনেতা। এ ছাড়া জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র পরিচিত মুখ তিনি। হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি তুমুল জনপ্রিয় টেলিভিশনের পর্দায়।