জনগণের আস্থাই বিচারকদের বড় সম্পদ : প্রধান বিচারপতি

ঢাকা : জনগণের আস্থা অর্জনই বিচারকদের জন্য বড় সম্পদ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট দিবস উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি।

বিচারকদের উদ্দেশে সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, বিচারের সমতা নীতির মাধ্যমে জনগণের আস্থা অর্জনে কাজ করছি। কারণ, জনগণের আস্থাই বিচারকদের বড় সম্পদ। করোনার ক্রান্তিকালে ভার্চুয়ালি বিচার বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে। এ পদ্ধতিতে আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগে উল্লেখযোগ্য হারে মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে।

তিনি বলেন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় নিজ নিজ অবস্থান থেকে কার্যকর ভূমিকা পালনে আমরা সদা সচেষ্ট থাকবো। আমি বিশ্বাস করি আমাদের সম্মিলিত প্রয়াসে সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে বিচার বিভাগ মানুষের কল্যাণে আরও দ্রুততার সঙ্গে কাজ করলে বিচারপ্রার্থী জনগণের আস্থা আরও বেড়ে যাবে।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ইতোমধ্যে অধস্তন আদালত তাদের ১৫ দিন অবকাশকালীন ছুটি বাতিল করেছেন। এতে বিচারপ্রার্থীদের কষ্ট কিছুটা হলেও লাঘব হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা দেশের দু’জন প্রথিতযশা আইনজীবীকে হারিয়েছি। একজন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, আরেকজন সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক। আমরা তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করছি।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ প্রধান অতিথি ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন- আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার, বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম, অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন হাইকোর্ট বিভাগের ডেপুটি রেজিস্ট্রার আব্দুর রহমান ও হাইকোর্ট বিভাগের ডেপুটি রেজিস্ট্রার সানজিদা সারোয়ার।