ভারতে কৃষি আইনের প্রতিবাদে শিখ পুরোহিতের আত্মহত্যা

মিরর ডেস্ক : ভারতে কৃষি আইনের প্রতিবাদে চলমান আন্দোলনে যোগ দেয়া এক শিখ পুরোহিত আত্মহত্যা করেছেন। হরিয়ানার গুরুদুয়ারার পুরোহিত বাবা রাম সিং বুধবার সন্ধ্যায় নিজেই গুলি করে আত্মহত্যা করেছেন বলে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। তবে আত্মহত্যার কারণ হিসেবে তিনি সরকারকে দায়ী করে গেছেন। ‘‘কৃষকদের কষ্টে এবং সরকারের অবিচারের’’ প্রতিবাদে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে সুইসাইড নোট লিখে গেছেন।

এনডিটিভি জানায়, কৃষি আইন বাতিলের প্রতিবাদে গত ২১ দিন ধরে আন্দোলন করছেন ভারতের লাখ লাখ কৃষক। পুরোহিত বাবা রাম সিংও যোগ দেন এই আন্দোলনে। কুন্দির দিল্লি-সনিপাত সীমান্তে অবস্থান করছিলেন ৬৫ বছরের রাম সিং। কৃষকদের আন্দোলনের উৎসভূমি সিঙ্গু সীমান্তের দুই কিলোমিটারের মধ্যেই অবস্থান ছিল রাম সিংয়ের।

কিন্তু বুধবার সন্ধ্যায় আত্মহত্যা করেন তিনি। আত্মহত্যার আগে রাম সিং তার ক্ষোভের কথা লিখে গেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘কৃষকদের অধিকার আদায়ের যুদ্ধের কষ্ট আমি অনুভব করি। আমি তাদের কষ্ট ভাগ করে নিয়ছি, কারণ সরকার তাদের সাথে ন্যায়বিচার করছে না। অন্যায় করা যেমন পাপ, তেমনি অন্যায় সহ্য করাও পাপ। কৃষকদের সমর্থনের কারণে অনেকেই সরকারের কাছ থেকে প্রতিদান পেয়েছেন। আমি নিজেকে উৎসর্গ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ডেপুটি পুলিশ কমিশনার শ্যামলাল পুনিয়া রাম সিংয়ের আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘গাড়ির ভেতরে নিজের শরীরে গুলি চালান রাম সিং। এরপর তাকে দ্রুত পানিপথের পার্ক হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

রাম সিংয়ের অনুসারীরা জানিয়েছেন, শুক্রবার কারানলে তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, বাবা রাম সিং গতকালও(বুধবার) অন্যদের সাথে আন্দোলন নিয়ে কথা বলেছেন। ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের হরিয়ানা শাখা প্রধান গুরুনাম সিং চারুনির সাথেও কথা বলেছেন। সরকার এবং কৃষকদের মধ্যকার অবস্থান নিয়ে তিনি তার সাথে আলোচনা করেছেন।

এদিকে রাম সিংয়ের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন অনেকে। বিরোধীদলগুলোর নেতারা তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন। এরমধ্যে রয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

তবে রাম সিংয়ের মৃত্যু নিয়ে হরিয়ানা সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো বক্তব্য দেয়া হয়নি।