নাইজেরিয়ায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থী অপহরণের দায় স্বীকার করল বোকো হারাম

মিরর ডেস্ক : একটি অডিও বার্তার মাধ্যমে নিজেকে বোকো হারামের প্রধান পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি নাইজেরিয়ার ছাত্রদের অপহরণের দায় স্বীকার করেছেন। গত ১১ ডিসেম্বর দেশটির কাটসিনা অঙ্গরাজ্যের একটি বোর্ডিং স্কুলের ছাত্রদের অপহরণ করে বন্দুকধারীরা। ঘটনার ৪ দিন পর গতকাল মঙ্গলবার দায় স্বীকার করল বোকো হারাম নামের জঙ্গী গোষ্ঠী।

বোকো হারামের অডিও বার্তায় বলা হয়, আমি আবুবাকার শেকাউ এবং কাটসিনার অপহরণের পেছনে রয়েছে আমাদের ভাইয়েরা। তবে অডিও বার্তার ব্যক্তি অপহরণের পক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি। নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের কোনো ভিডিও ফুটেজও এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে নাইজেরিয়া সরকারও কোনো মন্তব্য করেনি।

এ দিকে নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের প্রকৃত সংখ্যা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ৩৩৩ ছাত্র নিখোঁজ রয়েছে বলে সোমবার জানিয়েছিলেন নাইজেরিয়ার সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র জেনারেল জন এনেনচে। গত ১১ ডিসেম্বর কানকারা শহরের একটি সরকারি বিজ্ঞান মাধ্যমিক স্কুলে ভারি অস্ত্র নিয়ে বন্দুকধারীরা গুলি চালায়। এ সময় ছাত্রদের অপহরণ করে নিয়ে যায় তারা।

ইসলামিক স্টেট ইন ওয়েস্ট আফ্রিকা প্রভিন্স (ইসওয়াপ) বা বোকো হারাম নামে পরিচিত জঙ্গী গোষ্ঠীটি গত কয়েক বছর ধরে নাইজেরিয়ার উত্তরপূর্ব অঞ্চলসহ প্রতিবেশি ক্যামেরন, চাদ ও নাইজারে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। বোকো হারাম ২০১৪ সালে চিবক শহরের একটি বালিকা বিদ্যালয় থেকে কয়েকশ ছাত্রীকে অপহরণ করেছিল।

সূত্র: আল জাজিরা