২ কিশোরীকে অপহরণ করে ঢাকায় নেওয়ার পথে ২ যুবক আটক

বগুড়া প্রতিনিধি :বগুড়ার শেরপুরে অপহৃত দুই কিশোরীকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের বাংড়া গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে মামুন মিয়া (২০) ও একই ইউনিয়নের গাড়ীদহ কুঠির ভিটা সাকিল মাস্টারের ছেলে সুমিন হোসেন (২০)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মামলায় অভিযুক্ত বখাটেরা উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের কুঠির ভিটা গ্রামের বাদশা মিয়ার কিশোরী মেয়ে (১৩) ও প্রতিবেশী জহুরুল ইসলামের কিশোরী মেয়েকে (১৪) বেশকিছুদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল।

বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার বৈঠক করে তাদের সর্তক করা হয়। কিন্তু এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এমনকি আবারো প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হয়ে ১২ ডিসেম্বর বিকেল অনুমানিক ৫টার দিকে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়ক সংলগ্ন জুয়ানপুর গ্রামে যাওয়ার রাস্তা থেকে ওই দুই কিশোরীকে অপহরণ করা হয়। মামুন ও সুমনের নেতৃত্বে অপহরণকারীরা জোরপূর্বক তাদের সিএনজি চালিত একটি অটোরিকশায় তুলে বগুড়া শহরের দিকে নিয়ে যায় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

পরবর্তীতে সোমবার দুপুরের দিকে অপহৃত কিশোরীদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। গোপনে জানতে পেরে মহাসড়কের গাড়িদহ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থান নেওয়া ভুক্তভোগীদের পরিবার ও স্থানীয় জনতা অপহৃত কিশোরীদের উদ্ধারসহ অপহরণকারী চক্রের দুই ব্যক্তিকে আটক করে থানায় খবর দেয়। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার পর তাদেরকে সোর্পদ করা হয়।

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া মামলায় অভিযুক্ত আটক ব্যক্তিদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।