মাওলানা মামুনুল হকদের বয়ানে প্ররোচিত হয়ে ভাস্কর্য ভাঙচুর: ডিআইজি

কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের জন‌্য হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হকের বক্তব‌্য দায়ী বলে জানিয়েছেন পুলিশের খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি ড.খ. মহিদ উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘এই ঘটনায় গ্রেপ্তার মাদ্রাসা শিক্ষার্থী আবু বক্কর ও সবুজ ইসলাম বলেছে, তারা মামুনুল হকদের বয়ানে প্ররোচিত হয়েই বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর করেছে।’

রবিবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনন্স সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ডিআইজি এই তথ‌্য জানান।

ডিআইজি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে ভাস্কর্য ভাঙচুর করতে আবু বক্কর ও সবুজকে সহায়তা করেছেন মাদ্রাসা শিক্ষক আল আমিন ও ইউসুফ আলী। এরপর দিন মাদ্রাসা থেকে তাদের পালিয়ে যেতে সহায়তা করেন তারা। পরবর্তী সময়ে আবু বক্কর ও সবুজ ইসলামের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে শিক্ষক আল আমিন ও ইউসুফ আলীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।’

ড. মহিদ উদ্দিন আরও বলেন, ‘এই ঘটনায় রবিবার (৬ ডিসেম্বর) কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের পক্ষ থেকে বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’ এই মামলার তদন্ত চলছে বলেও তিনি জানান।