২০২১ সালে এশিয়া কাপ শ্রীলঙ্কায়, পরের বছর পাকিস্তানে

মিরর স্পোর্টস : চলতি বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানে এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলে। কিন্তু করোনাভাইরাসের এশিয়া কাপ স্থগিত করা হয়। এই আসর ২০২১ সালের জুনে বসতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কায়। আর ২০২২ সালের এশিয়া কাপ পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হতে পারে।

গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

তবে, পাকিস্তানে এশিয়া কাপ হলে ভারত খেলতে যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। আর ভারত না গেলে পাকিস্তানে এশিয়া কাপ হবে কিনা তা নিয়েও অনিশ্চয়তা রয়েছে।

গত সপ্তাহে হওয়া এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের অনলাইন বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওয়াসিম খান। তিনি বলেন, ‘পরের এশিয়া কাপ জুনে হবে শ্রীলঙ্কায়। আর আমরা ২০২২ সালের এশিয়া কাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছি।’

২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে হামলার পর থেকে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ। গত ১২ মাসে যদিও জিম্বাবুয়ে, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা সফর করেছে পাকিস্তানে। এখানে ক্রিকেট খেলা যে নিরাপদ, সেই ভাবমূর্তি গড়ে তুলতে চাইছে পাকিস্তান। যদিও ২০০৯ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত পাকিস্তান হোম ম্যাচ খেলেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

২০২২ সালের শুরুর দিকে পূর্ণাঙ্গ সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল পাকিস্তানে সফর করবে বলে আশা করছে পিসিবি। ১৯৯৮ সালে শেষবার পাকিস্তানে এসেছিল অস্ট্রেলিয়া। আগামী বছরের শেষের দিকে পাকিস্তানে আসার কথা ইংল্যান্ডেরও, যা হবে ২০০৬ সালের পর পাকিস্তানে ইংল্যান্ডের প্রথম সফর।

এদিকে আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ আয়োজন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন ওয়াসিম খান। ভারতে করোনার প্রাদুর্ভাব বেশি হওয়ায় আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপের এই আসর বসতে পারে।