রংপুরে বধ্যভূমিতে মিলল মানুষের হাড়গোড়

ওই বধ্যভূমিতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ কাজের জন্য সোমবার সকালে মাটি খোঁড়ার সময় এসব হাড়গোড় ও দাঁতের অংশ পাওয়া যায়।

এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে নগরীর বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ ছুটে যান টাউন হল বধ্যভূমি চত্বরে। বধ্যভূমি পরিদর্শনে এসে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির রংপুর সভাপতি মফিজুল ইসলাম মান্টু  বলেন, “এ এক বিশাল খবর। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মারক এই টাউন হল বধ্যভূমি। পাকিস্তান হানাদার বাহিনী সেই সময় টাউন হলে টর্চার সেল করেছিল। মুক্তিকামী বাঙালি, মুক্তিযোদ্ধা ও নিরীহ মানুষদের ধরে এনে টর্চার সেলে নির্যাতন ও হত্যা করেছিল। মা-বোনদের ইজ্জত লুটসহ তাদের হত্যা করে ফেলে দেওয়া হয়েছিল টাউন হলের পাশের কুয়ায়।

“এই ইতিহাসের কথা এতদিন আমরা সবাই বলছিলাম। হায়েনাদের হাতে মারা যাওয়া মানুষের আজ হাড়গোড় মিলেছে। আমরা মুক্তিযুদ্ধের মহান ইতিহাস সংরক্ষণ করে অমর গাথা ও স্মারক চিহ্ন জীবন্ত রাখতে চাই।”