মেসিদের বেতন কাটা হলো সাড়ে ১২শ’ কোটি টাকা!

মিরর স্পোর্টস : অবশেষে বার্সেলোনা ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বেতন কমানোর প্রশ্নে রাজি হলেন লিওনেল মেসিরা। বার্সেলোনার পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, ক্লাবটির খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তাদের বেতন কমিয়ে আনা হয়েছে সর্বমোট ১২২ মিলিয়ন ইউরো (প্রায় সাড়ে ১২শ’ কোটি টাকা)।

একই সঙ্গে বার্সার বর্তমান অন্তর্বর্তিকালীন কার্যনির্বাহী কমিটি জানিয়ে দিয়েছে, ক্লাবের আগামী প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনের সময়সীমা। আগামী বছর জানুয়ারির ২৪ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে প্রেসিডেন্টসহ বার্সার কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন।

ফুটবল সম্পর্কিত জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গোল ডটকম জানিয়েছে, আগামী তিন বছরের মধ্যে ধাপে ধাপে এই ১২২ মিলিয়ন পারিশ্রমিক কাটা হবে খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। করোনাভাইরাসের কারণে যে অর্থনৈতিক প্রভাব পড়েছে ক্লাবের রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে, সেটার সঙ্গে সমন্বয় করার উদ্দেশ্যেই মূলতঃ এই বেতন কাটার সিদ্ধান্ত।

তবে এ সিদ্ধান্তের ফলে সব মিলিয়ে বার্সার কোষাগারে যোগ হবে মোট ১৯০ মিলিয়ন ইউরো তথা প্রায় সাড়ে ১৯ শত কোটি টাকা। বার্সার পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ম্যানেজিং কমিশন ফুটবলার, কোচ এবং কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছে যে, তারা পারিশ্রমিক কর্তনের বিষয়ে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, সেটা বাস্তবায়ন করেছে। এতে করে ক্লাবের অর্থনৈতিক স্থিতাবস্থার ক্ষেত্রে একটা নিশ্চয়তা তৈরি হলো।’

হোসে মারিয়া বার্তেম্যু এবং তার নেতৃত্বাধীন পরিষদ পদত্যাগ করার পর একটা শূন্যতা চলছিল বার্সার কার্যনির্বাহী কমিটিতে। যদিও একটি অন্তর্বর্তিকালীন কমিটি কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারাই নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে। ২৪ জানুয়ারি নির্বাচন হওয়ার অর্থ, জানুয়ারি ট্রান্সফার উইন্ডোর মাত্র এক সপ্তাহ সময় পাবেন নতুন নির্বাচিত সভাপতি।

শুধু তাই নয়, জানুয়ারির ১ তারিখ থেকেই লিওনেল মেসি আর বার্সার খেলোয়াড় থাকছেন না। তার সঙ্গে বার্সার চুক্তি শেষ হয়ে যাবে এবং তিনি স্বাধীনভাবেই নিজের সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। চাইলে বার্সার সঙ্গে আলোচনা করতে পারবেন। কিংবা চাইলে অন্য কোথাও যেতে পারবেন।’